প্রোগ্রামিং নিয়ে সাধারণ লোকেদের মাঝে কী কী ভুল ধারণা আছে?

আসলে প্রশ্নটা খুবই সময়োপযগী। আমি নিজেই অনেক বার এমন প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছি। অনেক সময় যারা কম্পিউটার সায়েন্স সম্পর্কে জানেন না অথবা নতুন প্রোগ্রামিং সম্পর্কে জানা শুরু করেছেন তাদের মধ্যে এই ভুল ধারনাগুলো আরও প্রকট।
ভুল ধরনা তো অনেক ধরনের হতে পারে। একটি হতে পারে আপনি শুরু করতে চাচ্ছেন প্রোগ্রামিং সেই দিক থেকে ভুল ধরনা আবার হতে পারে অন্য কোন ব্যক্তির ভুল ধারনা যে, প্রোগ্রামিং করে না বা শিখতে চায় না। আমি চেষ্টা করব প্রচলিত কিছু ভুল ধারনা যা এই দুই শ্রেণীর মধ্যেই বিদ্যমান।
এখন আসি আসল কথায়। আমাদের প্রথমেই জানা দরকার প্রোগ্রামিং মূলত কি জিনিস?! প্রোগ্রামিং হল কম্পিউটারকে কিছু নির্দেশনা দেওয়া যার দ্বারা কম্পিউটার আমি যা চাচ্ছি সে অনুযায়ী কাজ করবে।
…..এবার আসি মানুষের মাঝে কী কী ভুল ধারণা রয়েছে…..
প্রোগ্রামিং যে কেউই শিখতে পারে
দিন দিন প্রোগ্রামিং ভাষাগুলো প্রায় নেচারাল ল্যাঙ্গুয়েজের মতো সোজা হয়ে যাচ্ছে। এর ফলে অনেকেই ভাবে প্রোগ্রামিং সবার দ্বারাই পসিবল, এই ধারণা কিন্তু একদমই সঠিক নয়। ম্যাক্সিমাম শিক্ষার্থী ফান্ডমেন্টাল শেষ করতে পারলেও এডভান্স লেভেল পর্যন্ত পৌঁছানো অনেকের পক্ষেই সম্ভব হয়না, এর কারণ হতে পারে তার কমপ্লেক্স লজিক তৈরির অক্ষমতা, গাইডেন্স/রিসোর্সের অভাব কিংবা ইচ্ছাশক্তির অভাব।
প্রোগ্রামিং শুধু জিনিয়াসদের জন্য
‘প্রোগ্রামিং সবার দ্বারা হয়’ এটা যেমন ভুল, তেমনি ‘এটি শুধু জিনিয়াসদের দ্বারা পসিবল’ তাও কিন্তু ভুল। আপনার প্রয়োজন ইচ্ছাশক্তি এবং লেগে থাকার মতো ধৈর্য্য। প্রোগ্রামিং এ দক্ষ হতে বছরের পর বছর লেগে যেতে পারে। এমনকি দক্ষ হওয়ার পরেও নিত্যনতুন অভূতপূর্ব সব টার্ম-এর মুখোমুখি হতে হবে। তাই কনসিসটেন্সি এখানে অনেক বড় একটা ফ্যাক্টর।
প্রোগ্রামিং মানেই হাই-লেভেল ম্যাথম্যাটিকস
যদিও under the hood প্রোগ্রামিং মানেই ম্যাথম্যাটিকস, তবুও কোডিং মানে বসে বসে ম্যাথ ফরমুলা লেখা নয়। প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ গুলোর বেশিরভাগ অ্যাপ্লিকেশনে অ্যাডভান্সড ম্যাথম্যাটিকস-এর তেমন কোনো প্রত্যক্ষ ব্যবহার নেই। কতটুকু ম্যাথমেটিক্যাল জ্ঞান লাগবে তার অনেকটাই নির্ভর করে শিক্ষার্থী কোন বিষয়ের উপর আগ্রহী। উদাহরণস্বরূপ, ওয়েব ডেভেলপমেন্টে ম্যাথমেটিক্যাল লজিক খুবই কম, কিন্তু গেম ডেভেলপমেন্ট বা ডাটা হ্যান্ডেলিং রিলেটেড কাজে ম্যাথের প্রয়োজন অনেক বেশি।
ম্যাথম্যাটিকাল জটিলতা কমানোর জন্য অনেক লাইব্রেরি আছে, যেগুলো আপনার কাজকে একদম সোজা করে দিতে পারে।
প্রোগ্রামার হতে হলে কম্পিউটার সায়েন্স বা সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়তে হবে
এই ধারনাটিও আমার মনে হয় খুবই কমন। আমার পরিচিত অনেক বড় বড় প্রোগ্রামার আছে যাদের এডুকেশনাল ব্যকগ্রাউন্ড ক্যামিস্ট্রি, ফিজিক্স, এমনকি রাষ্ট্রবিজ্ঞান নিয়ে, কেউ কেউ ইউনিভার্সিটি পর্যন্ত পৌঁছায়ইনি। তবুও তারা কিন্তু বেশ ভালোভাবেই নিজেদের ক্যারিয়ার গড়েছেন। প্রোগ্রামিং জগতে এমন কোনো জিনিসই নেই যা আপনি বাসায় বসে শিখতে পারবেননা। শুধু একটা কম্পিউটার আর ইন্টারনেট কানেকশন হলেই শুরু করা যায় প্রোগ্রামিং শেখা, প্রয়োজন ইচ্ছাশক্তির।
প্রোগ্রামিং শিখলেই চোখ বন্ধ করে টাকা আয় করা যায়
এটা আরেকটা কমন ভুল ধারনা। প্রোগ্রামিং ইন্ডাস্ট্রিতে কম্পিটিশন অনেক বেশি। শুধুমাত্র টপ এবং ফ্রেশ টেকনোলোজির সাথে তাল মিলিয়ে চলা প্রোগ্রামার এবং টাইম ও মেমরি এফিশিয়েন্ট প্রোগ্রামিং এ দক্ষ হলেই ভালো বেতনের চাকুরী বা ভালো ফ্রিল্যান্স ক্যারিয়ার গড়া সম্ভব।
প্রোগ্রামিং = হ্যাকিং
একদমই ভুল! শুধু প্রোগ্রামিং শিখে হ্যাকিং এর কিছুই বোঝা যাবেনা। এর জন্য প্রয়োজন ডিভাইস, ইন্টারনেট এবং ওয়েব সিকিউরিটির উপর গভীর জ্ঞান। তাছাড়া হ্যাকিং মানেই যে বসে বসে স্ক্রিপ্ট তৈরি করা তাও কিন্তু নয়, এর বেশ কিছু ফর্ম, অর্থাৎ রূপভেদ আছে।

You May Also Like

About the Author: রতন কুমার রায়

আমি ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে একজন পেশাদার ব্লগার । আমার জ্ঞান অনুযায়ী, আমি অন্যদের ফ্রিল্যান্সার সাহায্য করার চেষ্টা করি । আমি ২017 সাল থেকে ব্লগিং শুরু করেছি । আমি অ্যাফিলিয়েট বিপণন, সিপিএ বিপণন, এসইও, ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট এবং ওয়েব ডিজাইনও করি। আমি বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং বাজারে কাজ করি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *